মাস্টার লু প্রকাশিত ২০১৯ সালের শীর্ষ ১০ টি নকল স্মার্টফোন

চীনের বাজার জুড়ে নকল স্মার্টফোন। মাস্টার লু প্রকাশিত ২০১৯ সালের শীর্ষ ১০ টি নকল স্মার্টফোন

 

প্রযুক্তির কথা উঠলে আমাদের সবার চিন্তায় একটি দেশের নাম আগে আসবেই…চীন । হ্যা, বর্তমান বাজারে চীনের অবদান অনেক বেশি। স্বল্পমূল্যে গ্রাহকের চাহিদা মোতাবেক পন্য তৈরীতে তাদের জুড়ি মেলা ভার।

অ্যাপল ও স্যামসাং এর স্মার্টফোন দুনিয়া জুড়ে কেশ কদর। তেমনি চীনেও এর ব্যাতিক্রম নয়। চীনের তরূন প্রজন্ম থেকে শুরু করে প্রবীণদের কাছেও স্মার্টফোন হিসেবে অ্যাপল ও স্যামসাং অন্যান্য ব্র্যান্ডের তুলনায় অনেক জনপ্রিয়।

এই জনপ্রিয়তা কে কাজে লাগিয়ে চীনে আইফোন ও স্যামসাং এর বেশ কিছু এন্ডয়েডের নকল তৈরীতে হিড়িক লেগে গিয়েছে। এই মুহুর্তে চলমান শীর্ষ ১০ টি নকল স্মার্ট ফোনের তালিকা চীনের বেঞ্চমার্কিং পোর্টাল “মাস্টার লু” প্রকাশ করেছে।

তাদের ভাষ্যমতে, নকল স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে চীনের স্মার্টফোন বাজার অ্যাপল ১৫.৮৮% এবং স্যামসাং ২৮.৭% নিজেদের অবস্থান নিয়ে রাজত্ব করছে।

শীর্ষ ১০ টি নকল স্মার্টফোনের তালিকা (মাস্টার লু প্রকাশিত):

১.স্যামসাং ডব্লিউ ২০১৮
২.আইফোন ৮
৩.আইফোন এক্সএস ম্যাক্স
৪.আইফোন এক্স
৫.স্যামসাং ডব্লিউ ২০১৯
৬.স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৮ প্লাস
৭.শাওমি মি ম্যাক্স
৮.শাওমি মি ৯
৯.অপ্পো আর১১ প্লাস
১০.ওয়ান প্লাস ৭ প্রো

লিস্টের শীর্ষে থাকা স্যামসাং ডব্লিউ ২০১৮ তার ফ্লিপ স্টাইল থাকায় সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় চীনের স্মার্টফোন ক্রেতাদের কাছে। নকল স্যামসাং ডব্লিউ ২০১৮ প্রায় ৪৬৮৮ বার ক্রেতাদের মাঝে দেখা গেছে । ২য় তে থাকা আইফোন ৮ কে পাওয়া গেছে প্রায় ৪৪৪৫ বার এবং ৩য় তে অবস্থারত আইফোন এক্সএস ম্যাক্স কে পাওয়া গেছে প্রায় ২৪৯৯ বার।

মাস্টার লু এপের সহায়তায় মোট ৬,৬৩৯,৭০৪ টি স্মার্ট ফোনকে টেস্টা করা হয়, যার মাঝে ৫৭,৭৯০ টি বিভিন্ন মডেলের স্মার্টফোন নকল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে ।

চীনের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এর আগে অনেকবারই এ ধরনের নকল স্মার্টফোন তৈরীকারী প্রতিষ্ঠান জব্দ করেছে। তাদের তথ্যমতে, এসব নকল স্মার্টফোন তারা তৈরী করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সাপ্লাই করে , বিশেষ করে অনুন্নত দেশ গুলোতে এ ধরনের ফোন পাওয়া যাচ্ছে বেশি।

আর সাশ্রয়ী দামে এসব ফোন পেয়ে অনেকেই আসল ভেবে কিনে নিচ্ছেন এবং পরে ভোগান্তির শিকার হন।

 

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.